Wednesday, April 17, 2024
No menu items!

আমাদের মুসলিমউম্মাহ ডট নিউজে পরিবেশিত সংবাদ মূলত বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের সমাহার। পরিবেশিত সংবাদের সত্যায়ন এই স্বল্প সময়ে পরিসরে সম্ভব নয় বিধায় আমরা সৌজন্যতার সাথে আহরিত সংবাদ সহ পত্রিকার নাম লিপিবদ্ধ করেছি। পরবর্তীতে যদি উক্ত সংবাদ সংশ্লিষ্ট কোন সংশোধন আমরা পাই তবে সত্যতার নিরিখে সংশোধনটা প্রকাশ করবো। সম্পাদক

হোমনিবন্ধজুমুয়ার খুৎবা-সংযুক্ত আরব আমীরাত-বিষয় : এতিম লালনকারী জান্নাতে

জুমুয়ার খুৎবা-সংযুক্ত আরব আমীরাত-বিষয় : এতিম লালনকারী জান্নাতে

••• জুম’আর খোৎবার সার- সংক্ষেপ •••
১৩/০১/২০১৭ শুক্রবার ।
সংযুক্ত আরব আমীরাত (UAE )

*** বিষয় : এতিম লালনকারী জান্নাতে ***

*** খতীব: এম কিউ এম ছাইফুল্লাহ মেহরুজ্জমান বাংলাদেশী । শারজাহ ,UAE .

*** ১০ বছরের নীচে যে কোন শিশুর মা অথবা বাবা কিংবা উভয়ে যদি মারা যান , ঐ শিশুটিকে শরিয়তের পরিভাষায় ” এতিম ” বা Orphan বলা হয় । অর্থাৎ কোন বাচ্চা যদি ১০ বৎসর বয়সে পৌঁছে যায় , মাতৃ- পিতৃহীন এই বাচ্চাকে ” এতিম ” বলা বৈধ নয় । একটি শিশু যতক্ষণ পর্যন্ত নাবালেগ থাকে , ততক্ষণ পর্যন্ত সে এতিমের সংজ্ঞায় থাকবে । ১০ বছর বয়সী যে কোন ছেলে- মেয়ের উপর পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ শতভাগ ফরজ । এ ব্যাপারে কোন ছাড় নেই ।

*** আল্লাহপাক বলেন ,
و ابتلوا اليتمي حتي اذا بلغوا النكاح .
” এতিম বাচ্চারা বিয়ের বয়স পর্যন্ত পৌঁছেছে কিনা পরীক্ষা করে দেখো ।”
সূরা আন নিসা ৬

*** ১০ বছর বয়সী যে কোন ছেলে- মেয়ে খুব সহজেই বিয়ে করতে সক্ষম এবং সন্তানের পিতা হওয়ার ক্ষমতা রাখে ।

*** এতিম শিশুরা আল্লাহ ও তাঁর রসুলের সা: অত্যন্ত প্রিয় । মহানবী সা: এতিম ছিলেন এবং তাঁকে এতিমদের সংগে বিনম্র হওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে । আল্লাহপাক বলেন ,
الم يجدك يتيما فاوي ؟ …. فإما اليتيم فلا تقهر .
সূরা আধ্ধুহা ৬, ১০

*** আল্লাহপাক এতিমদের প্রতি সহযোগীতা করার জন্য বহু আয়াতে আদেশ প্রদান করেন ।
و يسألونك عن اليتمي قل إصلاح لهم خير و ان تخالطوهم فإخوانكم .
সূরা আল বাক্বারা ২২০
يسألونك ماذا ينفقون قل ما انفقتم من خير فللوالدين و الأقربين و اليتمي و المساكين و ابن السبيل و ما تفعلوا من خير فان الله به عليم .
সূরা আল বাক্বারা ২১৫
এ ভাবে বিভিন্ন সূরায় অসংখ্য আয়াত চোখে পড়ে ।

*** যে কোন এতিমের প্রতি উদার হবেন , এটাতো নিয়মতান্ত্রিক কথা । মহানবী সা: বলেছেন ,
احب الناس الي الله أنفعهم للناس .
الطبراني في المعجم الصغير 106/2

*** এতিম যদি হয় রক্তের আত্নীয় , তখন আপনার দায়িত্ব অনেক গুণ বেশী । আল্লাহপাক বলেন ,
واعبدوا الله و لا تشركوا به شيئا و بالوالدين إحسانا و بذي القربي و اليتمي و المساكين .
সূরা আন নিসা ৩৭
او اطعام في يوم ذي مسغبة ، يتيما ذَا مقربة .
সূরা আল বালাদ ১৪-১৫

*** আপনার নিকটতম কোন এতিম সন্তানের লালন – পালন করতে গিয়ে তাঁদের ধন- সম্পদ গ্রাস করবেন না । ইহা আগুন । আপনাকে জ্বালিয়ে পুড়িয়ে ছাই করে দেবে । মনে রাখবেন যে, তখন জাহান্নাম চির অবধারিত । আল্লাহপাক বলেন,
ان الذين ياكلون أموال اليتمي ظلما إنما ياكلون في بطونهم نارا و سيصلون سعيرا .
সূরা আন নিসা ১০
و لا تقربوا مال اليتيم إلاّ بالتي هي أحسن حتي يبلغ أشده .
সূরা আল আনআম ১৫২

*** এতিমদের পৃষ্টপোষকতা করতে গিয়ে যদি আপনি ধনী ব্যক্তি হয়ে থাকেন , এতিমদের থেকে কখনো কোন বিনিময় নেবেন না । আর যদি আপনি অসহায় হয়ে থাকেন , শরিয়ত সম্মতভাবে যতটুকু আপনি অধিকার পেয়ে থাকেন , কেবল ততটুকুই এতিমদের সম্পদ থেকে ভোগ করতে পারেন । অত:পর তারা বালক হয়ে গেলে তাঁদের সম্পদ তাঁদের দায়িত্বে ফেরত দিয়ে দেবেন । আল্লাহপাক বলেন ,
و لا تاكلوها إسرافا و بدارا ان يكبروا …..
সূরা আন নিসা ৬

*** মহানবী সা: বলেছেন ” জান্নাতে আমার ও এতিম লালনকারী ব্যক্তির মাঝখানে দুই আঙ্গুলের দূরত্ব থাকবে মাত্র । “
ছহীহুল বোখারি ৫৩০৪

*** এক ব্যক্তি রসুল সা:কে বললেন , আমার অন্তরটা বড় পাষাণ । কি ভাবে নম্র করতে পারি ? নবীজী সা: বললেন , গরীবদের খাবার দাও এবং এতিমদের মাথায় হাত বুলিয়ে দাও ।”
মসনদে আহমদ ৭৫৭৬

*** সম্মানিত মুসল্লীবৃন্দ ,
আপনি ৩/৪ বৎসরের সন্তান রেখে নিজেকে একবার মৃত ভাবুন । সন্তানের জন্য কেমন অনূভুতি আসে পরীক্ষা করে দেখুন !!!!!!! পার্শ্ববর্তী আপনার ভাই কিংবা অন্য কেউ যখন নাবালেগ সন্তান রেখে মারা যান , তখন সে সন্তান কিংবা বিধবা স্ত্রীর অব্যক্ত আর্তনাদে আসমান প্রকম্পিত হয় । Are you feeling sad ? I’m speechless. I can’t go to the next !!!!!!!!! I’m sorry oh all of my brothers. I can’t explain my feelings and emotions…..

*** আমার প্রিয় বাংলাদেশী প্রবাসী ভায়েরা ,
আমার খোৎবায় আমিও কাঁদছি । আপনারাও কাঁদছেন । ছুটিতে দেশ সফরে গেলে প্রথমে আপনার নিকটতম এতিম সন্তানদের বুকে জড়িয়ে ধরবেন । আত্মীয়দের মধ্যে এতিম না থাকলে এক দৌড়ে মাদ্রাসায় চলে যান । সেখানে মা, বাবা হারা অসংখ্য এতিম সন্তানেরা আপনার জন্য অপেক্ষা করছে । তাঁদের বুকে জড়িয়ে ধরুন । মাথায় হাত বুলিয়ে দিন । খাবার ও টাকা- পয়সা দিয়ে সাহায্য করুন ।

*** মনে রাখবেন যে, এতিমদের বুকে জড়িয়ে ধরা মানে রসুল সা:কে বুকে জড়িয়ে ধরা ।” Because He Was Also An Orphan…….

*** যে কোন খতীব সাহেব আমার খোৎবাগুলো জুমার খোৎবায় রাখতে পারেন । কোন সমস্যা নেই । Thanks to all of you .

MQM Saifullah Mehruzzaman

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

1 + eighteen =

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য