Wednesday, April 17, 2024
No menu items!

আমাদের মুসলিমউম্মাহ ডট নিউজে পরিবেশিত সংবাদ মূলত বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের সমাহার। পরিবেশিত সংবাদের সত্যায়ন এই স্বল্প সময়ে পরিসরে সম্ভব নয় বিধায় আমরা সৌজন্যতার সাথে আহরিত সংবাদ সহ পত্রিকার নাম লিপিবদ্ধ করেছি। পরবর্তীতে যদি উক্ত সংবাদ সংশ্লিষ্ট কোন সংশোধন আমরা পাই তবে সত্যতার নিরিখে সংশোধনটা প্রকাশ করবো। সম্পাদক

হোমদৈনন্দিন খবরমধ্যপ্রাচ্যে ১৪১ কোটি ডলারের অস্ত্র রপ্তানির অনুমোদন দিয়েছে জার্মানি

মধ্যপ্রাচ্যে ১৪১ কোটি ডলারের অস্ত্র রপ্তানির অনুমোদন দিয়েছে জার্মানি

মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশের কাছে গত বছর ১১৬ কোটি ইউরো বা ১৪১ কোটি ডলারের অস্ত্র রপ্তানি অনুমোদন দিয়েছে জার্মান সরকার। এসব দেশ ইয়েমেন এবং লিবিয়ার যুদ্ধের সঙ্গে যুক্ত। ডয়েচে ভেলেকে উদ্ধৃত করে এ খবর দিয়েছে অনলাইন ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস। এতে আরো বলা হয়, ১৭ই ডিসেম্বর নাগাদ মিশরের কাছে ৭৫ কোটি ২০ লাখ ইউরো মূল্যের অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জাম রপ্তানি অনুমোদন করেছে সরকার। এ ছাড়া কাতারের কাছে ৩০ কোটি ৫১ লাখ ইউরো, সংযুক্ত আরব আমিরাতের কাছে কমপক্ষে ৫ কোটি ১০ লাখ ইউরো, কুয়েতের কাছে ২ কোটি ৩৪ লাখ ইউরো এবং তুরস্কের কাছে ২ কোটি ২৯ লাখ ইউরো মূল্যের অস্ত্র বিক্রির অনুমোদন পেয়েছে জার্মানির অস্ত্র বিষয়ক কোম্পানিগুলো। এর বাইরে ১৭ লাখ ইউরো এবং বাহরাইনে ১৫ লাখ ইউরোর অস্ত্র বিক্রির লাইসেন্স দেয়া হয়েছে। জার্মানির গ্রিন পার্টির সদস্য ওমিদ নূরিপুরের কাছ থেকে আসা এক প্রশ্নের জবাবে দেশটির পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে এসব তথ্য দিয়েছে মন্ত্রণালয়।
রিপোর্টে বলা হয়েছে, যেসব দেশের কাছে অস্ত্র বিক্রির অনুমোদন দেয়া হয়েছে তারা সবাই ইয়েমেন এবং লিবিয়ায় অনেক বছর ধরে দুটি দেশের বিরুদ্ধে অথবা একটির বিরুদ্ধে যুদ্ধে লিপ্ত। ইয়েমেনে সৌদি আরব নেতৃত্বাধীন জোট ইরান সমর্থিত হুতিদের বিরুদ্ধে লড়াই করছে ২০১৪ সাল থেকে। এই জোটে রয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত, মিশর, কুয়েত, জর্ডান এবং বাহরাইন। ইয়েমেনে ৬ বছর মেয়াদী যুদ্ধে নিহতের সংখ্যা দুই লাখ ৩৩ হাজার ছাড়িয়ে গেছে বলে তথ্য দিয়েছে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক অফিস। এর মধ্যে খাদ্য, স্বাস্থ্যসেবা ও অবকাঠামোর অভাবে পরোক্ষভাবে মারা গেছে কমপক্ষে এক লাখ ৩১ হাজার মানুষ। অন্যদিকে লিবিয়ার গৃহযুদ্ধ ২০১৪ সাল থেকে তীব্র হয়েছে। এর পর কয়েক হাজার মানুষ মারা গিয়েছেন। সেখানে জাতিসংঘ স্বীকৃত গভর্নমেন্ট অব ন্যাশনাল একর্ডের প্রধানমন্ত্রী ফায়েজ আল সরাজের পক্ষ নিয়ে হস্তক্ষেপ করেছে কাতার ও তুরস্ক। পক্ষান্তরে বিদ্রোহী সামরিক শক্তিধর জেনারেল খলিফা হাফতারকে সমর্থন করছে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও মিশর। বর্তমানে লিবিয়ায় অস্ত্রবিরতি চলছে। এর ফলে সেখানে লড়াইয়ের ইতি ঘটবে বলে আশা করা হচ্ছে।
বিশ্বে শীর্ষস্থানীয় অস্ত্রবিক্রেতার মধ্যে জার্মানি অন্যতম। আর যারা বেশি অস্ত্র বিক্রি করে তার মধ্যে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, ফ্রান্স ও চীন। স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্স ইনস্টিটিউটের তথ্যমতে, সব মিলে ২০১৫ থেকে ২০১৯ সালের মধ্যে যত অস্ত্র রপ্তানি হয়েছে তার মধ্যে এই ৫টি দেশ শতকরা ৭৬ ভাগ অস্ত্র রপ্তানি করেছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

6 − 1 =

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য