Wednesday, June 12, 2024
No menu items!

আমাদের মুসলিমউম্মাহ ডট নিউজে পরিবেশিত সংবাদ মূলত বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের সমাহার। পরিবেশিত সংবাদের সত্যায়ন এই স্বল্প সময়ে পরিসরে সম্ভব নয় বিধায় আমরা সৌজন্যতার সাথে আহরিত সংবাদ সহ পত্রিকার নাম লিপিবদ্ধ করেছি। পরবর্তীতে যদি উক্ত সংবাদ সংশ্লিষ্ট কোন সংশোধন আমরা পাই তবে সত্যতার নিরিখে সংশোধনটা প্রকাশ করবো। সম্পাদক

হোমকুরআন ও হাদীসআসুন, আজ কুরআনুল কারীমের দুইটি আয়াত শিখি।

আসুন, আজ কুরআনুল কারীমের দুইটি আয়াত শিখি।

তাফসীর সূরা “আন নাস”

আয়াত নং ০৫  (الذي يوسوس في صدور الناس)

“যে মানুষের অন্তঃকরণে কুমন্ত্রণা দেয়”

আয়াত নং ০৬  (من الجنه والناس)

“মানুষ এবং জিনদের মধ্য হতে”

উক্ত আয়াত দুটি দ্বারা বুঝা যায় যে কুমন্ত্রণাদাতা মানুষ এবং জিন দুই জাতির মধ্য থেকেই হতে পারে। আল্লাহ তা’আলা বলেন-

وَ كَذٰلِكَ جَعَلْنَا لِكُلِّ نَبِیٍّ عَدُوًّا شَیٰطِیْنَ الْاِنْسِ وَ الْجِنِّ یُوْحِیْ بَعْضُهُمْ اِلٰى بَعْضٍ زُخْرُفَ الْقَوْلِ غُرُوْرًاؕ وَ لَوْ شَآءَ رَبُّكَ مَا فَعَلُوْهُ فَذَرْهُمْ وَ مَا یَفْتَرُوْنَ

“আর এভাবে আমি  মনুষ্য জাতীয় শয়তান ও জিন জাতীয় শয়তানদেরকে প্রত্যেক নবীর দুশমনে পরিণত করেছি, তারা ধোঁকা ও প্রতারণার উদ্দেশ্যে পরস্পরকে চমকপ্রদ কথা বলে। তোমার রব চাইলে তারা এমনটি কখনো করতো না। কাজেই তাদেরকে তাদের (জঘন্য কাজের) ওপর ছেড়ে দাও, তারা মিথ্যা রচনা করতে থাকুক”। -আন’আম ১১২.

প্রত্যেক মানুষের সাথে একজন করে জিন শয়তান রয়েছে। সে সর্বদা তাকে পথভ্রষ্ট করার প্রচেষ্টা চালায়। আল্লাহ তায়ালা তাকে বিশেষ এই ক্ষমতা দিয়েছেন। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম বলেন-

عن عبدالله بن مسعود:ما منْكُم مِن أحدٍ، إلّا وقد وُكِّلَ بهِ قرينُه من الجِنِّ، وقرينُه من الملائكَةِ. قالُوا: وإيّاكَ؟ قالَ: وإيّايَ، إلّا إنَّ اللهَ أعانَنِي عليهِ فأسلَمَ، فلا يأمرُني إلّا بخَيرٍ,

আব্দুল্লাহ ইবনে মাসউদ হতে বর্ণিত,রাসূলুল্লাহ্ (সঃ) বলেছেনঃ “তোমাদের প্রত্যেকের সাথে একজন করে শয়তান রয়েছে।” সাহাবিগণ জিজ্ঞেস করলেনঃ “হে আল্লাহর রাসূল (সঃ)! আপনার সাথেও কি শয়তান রয়েছে?” উত্তরে তিনি বললেনঃ “হ্যা আমার সঙ্গেও শয়তান রয়েছে? কিন্তু আল্লাহ তাআলা ঐ শয়তানের মুকাবিলায় আমাকে সাহায্য করেছেন, কাজেই আমি নিরাপদ থাকি। সে আমাকে পুণ্য ও কল্যাণের শিক্ষা দেয়।” সহীহ মুসলিম-১৪২৮২.

এজন্য রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সর্বদা আল্লাহর কাছে আশ্রয় প্রার্থনা করতেন যাবতীয়  মানব সৃষ্ট এবং শয়তানদের সৃষ্ট সর্বপ্রকারের অনিষ্ট থেকে। সহি হাদিসে এসেছে-

 عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ، أَنَّ أَبَا بَكْرٍ الصِّدِّيقَ، رضى الله عنه قَالَ يَا رَسُولَ اللَّهِ مُرْنِي بِكَلِمَاتٍ أَقُولُهُنَّ إِذَا أَصْبَحْتُ وَإِذَا أَمْسَيْتُ ‏.‏ قَالَ ‏”‏ قُلِ اللَّهُمَّ فَاطِرَ السَّمَوَاتِ وَالأَرْضِ عَالِمَ الْغَيْبِ وَالشَّهَادَةِ رَبَّ كُلِّ شَىْءٍ وَمَلِيكَهُ أَشْهَدُ أَنْ لاَ إِلَهَ إِلاَّ أَنْتَ أَعُوذُ بِكَ مِنْ شَرِّ نَفْسِي وَشَرِّ الشَّيْطَانِ وَشِرْكِهِ ‏”‏ ‏.‏ قَالَ ‏”‏ قُلْهَا إِذَا أَصْبَحْتَ وَإِذَا أَمْسَيْتَ وَإِذَا أَخَذْتَ مَضْجَعَكَ ‏”‏ ‏.‏

আবূ হুরাইরাহ (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ:

আবূ বাক্‌র সিদ্দীক (রাঃ) বললেন, হে আল্লাহ্‌র রাসূল! আমাকে এমন কিছু কালেমা শিখিয়ে দিন যা আমি সকাল-সন্ধ্যায় উপনীত হয়ে বলবো। তিনি বলেনঃ তুমি বলো, “হে আল্লাহ্‌! আপনি আসমান ও যমীনের স্রষ্টা, দৃশ্য ও অদৃশ্যের জ্ঞাতা, প্রত্যেক বস্তুর রব ও মালিক! আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি যে, আপনি ছাড়া আর কোন ইলাহ নেই। আমার মনের কু-প্রবৃত্তি, শয়তানের খারাবী ও তার শির্‌কী হতে আপনার নিকট আশ্রয় চাইছি।” তিনি বলেনঃ হে আবূ বাক্‌র! তুমি এ কথাগুলো ভোরে, সন্ধ্যায় ও শোয়ার সময় বলবে।” -সুনানে আবু দাউদ, হাদিস নং ৫০৬৭

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

11 − 2 =

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য