Wednesday, June 12, 2024
No menu items!

আমাদের মুসলিমউম্মাহ ডট নিউজে পরিবেশিত সংবাদ মূলত বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের সমাহার। পরিবেশিত সংবাদের সত্যায়ন এই স্বল্প সময়ে পরিসরে সম্ভব নয় বিধায় আমরা সৌজন্যতার সাথে আহরিত সংবাদ সহ পত্রিকার নাম লিপিবদ্ধ করেছি। পরবর্তীতে যদি উক্ত সংবাদ সংশ্লিষ্ট কোন সংশোধন আমরা পাই তবে সত্যতার নিরিখে সংশোধনটা প্রকাশ করবো। সম্পাদক

হোমদৈনন্দিন খবরটাকা কম দেয়ায় শিশুরোগীকে চিকিৎসকের মারধর

টাকা কম দেয়ায় শিশুরোগীকে চিকিৎসকের মারধর

সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা  উপজেলা  স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের দায়িত্বে থাকা উপ-সহকারী মেডিকেল অফিসার আর কে চাকলাদারের বিরুদ্ধে  কুলসুম আক্তার (০৬) নামে এক রোগীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে। চিকিৎসককে টাকা কম দেয়ায় গত বুধবার দুপুরে কুলসুমকে মারধর করে ওই চিকিৎসক। এতে জ্ঞান হারায় ওই শিশু। কুলসুম উপজেলার সদর ইউনিয়নের আতকাপাড়া গ্রামের জলিল মিয়ার মেয়ে। এ বিষয়ে ওইদিন বিকালে শিশুটির চাচা মো. রতন মিয়া বাদী হয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন।  জানা গেছে, বুধবার দুপুরে দা দিয়ে কুলসুমের ডান হাতের বেশ খানিকটা কেটে যায়। রক্তাক্ত অবস্থায় শিশুটিকে নিয়ে তার চাচা রতন মিয়া ধর্মপাশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক উপ-সহকারী মেডিকেল অফিসার আর কে চাকলাদার শিশুটির চিকিৎসার জন্য তার চাচা রতন মিয়ার কাছে ৪শ’ টাকা দাবি করেন। সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে টাকা লাগেনা বলে তা দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন। এ নিয়ে  রতন মিয়া ও আর কে চাকলাদারের মধ্যে তর্ক হয়। একপর্যায়ে বাধ্য হয়ে ওই চিকিৎসককে ১১০ টাকা দেয় রতন মিয়া। তাতে তিনি সন্তুষ্ট না হয়েই শিশুটির চিকিৎসা শুরু করেন। হাতের কাটা স্থান সেলাই করার সময় ভয়ে শিশুটি চিৎকার করে কাঁদতে থাকে। এ সময় চিকিৎসক আর কে চাকলাদার রেগে ওই শিশুটির গালে সজোরে থাপ্পড় মারে। এ সময় শিশুটি অজ্ঞান হয়ে পড়ে। প্রায় আধাঘণ্টা পর শিশুটির জ্ঞান ফিরে আসে। এ বিষয়ে অভিযুক্ত চিকিৎসক আর কে চাকলাদার বলেন, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে ভুল বোঝাবুঝির এ বিষয়টি সমাধান করা হয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. এমরান হোসেন দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, এ বিষয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসক ডা. সাব্বির জামান রকিকে প্রধান করে ৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মুনতাসির হাসান বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে  উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আবু তালেবকে প্রধান করে ৩ সদস্য বিশিষ্ট পৃথক আরো একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

three × 2 =

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য